• রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:১৩ পূর্বাহ্ন
  • English Version | Epaper
শিরোনাম :
হরণী ইউনিয়নের ০৬ নং ওয়ার্ডে শ্রমিক লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন মোঃআবদুর রহিম মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কতৃক মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদানের উদ্ধোধন অনুষ্ঠিত নোয়াখালীর হরণী ইউনিয়নে জাতীয় শ্রমিক লীগের ত্রি- বার্ষিক সম্মেলন নোয়াখালীতে পারি ফাউন্ডেশনের উদ্দ্যেগে অসহায়দের মাঝে খাবার বিতরন বেনাপোল স্হল বন্দরে ভূয়া কার্ড তৈরির কারিগর সাংবাদিক সুমন সনাক্ত জরিমানা আদায় মোল্লাহাটে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে উপহার, ভূমিহীন ও গৃহহীনদের মাঝে জায়গা সহ বাড়ি শার্শার বড়বসন্তপুরে ফসলি জমি থেকে মাটি উত্তোলন করায় ২ জনকে জরিমানা। ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কটূক্তি নোয়াখালী জেলা কমিটি বিলুপ্ত না হওয়া পর্যন্ত মেয়র কাদের মির্জার অনশন কর্মসূচি ঘোষণা ভোটাধিকার এবং কার্যকর গণতন্ত্র রক্ষার দাবিতে মাঠে নামলেন হানিফ বাংলাদেশি বেগমগঞ্জে যুবককে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় ১জন আটক
নোটিশ :
Wellcome to our website...

পল্লবীতে দোকান থেকে ডেকে নিয়ে মারধর

প্রথমসংবাদ ডেক্স : / ৫৯ বার
আপডেটের সময় : সোমবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর পল্লবীতে এক ব্যবসায়ীকে ডেকে নিয়ে মারধরের অভিযোগ ওঠেছে। এ বিষয়ে পল্লবী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন আহত ব্যবসায়ীর স্ত্রী নাসরিন আক্তার। মামলা নং ৩২/১৭-১২-২০২০।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, পল্লবীর ১১নং সেকশনে ৬নং রোডে লালমাটিয়া প্লটে পুরাতন মোবাইল মেরামতের ব্যবসা করেন সেলিম আলম। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ১৬ ডিসেম্বর রাত আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে স্থানীয় বাবু ওরফে চাকমা বাবু অজ্ঞাতনামা ৭-৮ জন লোক সেলিমকে ডেকে নিয়ে যায় পল্লবীর ১২নং সেকশনের পল্লবী মহিলা ডিগ্রী কলেজের দক্ষিণ পাশে কবরস্থানের পিছনে।

সেখানে চাকমা বাবুসহ তার সহযোগীরা সেলিমের ওপর লোহার হাতুরি ও কাঠের বিট দিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় সেলিমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয় এবং বাম হাত ও বাম পায়ের হাড় ভেঙে দেওয়া হয় এবং সেলিমের সঙ্গে থাকা নগত ২১হাজার ৬০০ টাকা ও দুইটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। যার মূল্য ১৪ হাজার টাকা। পরে সেলিমকে সেখানে ফেলে চলে যায় তারা।

এরপর সেলিমের স্ত্রী বিষয়টি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহায়তায় সেলিমকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠান হাসপাতালে নিয়ে যান। থানায় মামলা হওয়ার পর পুলিশ এক আসামিকে গ্রেফতার করে। এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী অফিসার এস আই বক্তিয়ারের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।


এ জাতীয় আরো সংবাদ