• সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৫:১৭ পূর্বাহ্ন
  • English Version | Epaper
শিরোনাম :
আদর্শ গ্রাম রৌপ্য কাপ নাইট শর্ট পিচ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট-২০২১ এর ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হাতিয়া থানার উদ্বেগে কেক কেটে ০৭ই মার্চ-২০২১ উদযাপন সহকর্মী সাংবাদিক আরিফ মোটরসাইকেল এক্সিডেন্ট করে অসুস্থ তার দ্রুত সুস্থতা কামনা করছি ফরিদপুর পৌরসভায় প্রশিক্ষণ কর্মশালা শুরু মেয়েকে দিয়ে মায়ের যৌন ব্যবসা, ধর্ষণ মামলার বাদী ও চেয়ারম্যান আসামী বাইশ রশি জমিদার বাড়ি সংস্কার ও সংরক্ষণের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত পৌর মেয়রকে সম্বর্ধনা জানালো সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ এর শিক্ষক পরিষদ ফরিদপুর জেলা ছাত্রদল উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ফরিদপুরে আব্দুল হক স্মৃতি ব্যাডমিন্টন টুর্ণামেন্ট শুরু নোয়াখালীতে সাংবাদিক মোজাক্কির হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও কালো পতাকা মিছিল
নোটিশ :
Wellcome to our website...

‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নারীরা এখন কোনো দিকেই পিছিয়ে নেই’

প্রথমসংবাদ ডেক্স : / ২১৪ বার
আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ৬ জুন, ২০১৯

পারভীন হক সিকদার প্রথম কোনো ব্যাংকের চেয়ারপার্সন হিসেবে দায়িত্ব পালন করা একমাত্র বাংলাদেশী নারী। বেসরকারি খাতে এই দেশের প্রথম ন্যাশনাল ব্যাংকের চেয়ারপার্সন হিসেবে প্রতিষ্ঠানটির উন্নয়নে তিনি রেখেছেন অনন্য সাধারণ ভূমিকা। আর এখন তিনি এই ব্যাংকেরই নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে পালন করেছেন দায়িত্ব।

একজন উচ্চ শিক্ষিত নারী উন্নয়ন ব্যক্তিত্ব পারভীন হক সিকদার। ডাক্তারি পড়াশোনা শেষ করে মেয়েদের ডাক্তারি পেশায় এগিয়ে আসতে নিবিড়ভাবে কাজ করছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

সিকদার ওমেন্স মেডিকেল কলেজ এবং মনোয়ার সিকদার মেডিকেল কলেজ এই দেশে মেয়েদের ডাক্তারি শিক্ষায় অনন্য দুটি প্রতিষ্ঠান। এই দুটি প্রতিষ্ঠানের পেছনে রয়েছে পারভীন হক সিকদারের অক্লান্ত পরিশ্রম। সম্প্রতি এই নারী উন্নয়ন ব্যক্তিত্ব একাদশ জাতীয় সংসদের শরীয়তপুর জেলা থেকে সংরক্ষিত আসনে নারী সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। পারভীন হক সিকদারের প্রসঙ্গ আসলে সবার আগে চলে আসে তার পিতা জয়নুল হক সিকদারের পরিচয়। তাই এখানে পারভীন হক সিকদারের পিতা এবং তাদের পারিবারিক নানামুখি উন্নয়ন উদ্যোগসহ প্রভৃতি বিষয় উল্লেখযোগ্য। জাতীয় অর্থনীতিতে একজন নামী ব্যক্তিত্ব জয়নুল হক সিকদার। যিনি তার কর্মদক্ষতা, একাগ্রতা ও মেধার গুণে আজকের অবস্থানে অধিষ্ঠিত।

প্রতিজ্ঞা, নিষ্ঠা আর শ্রমের মাধ্যমে একজন মানুষের একার পক্ষে বিরাট স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দেয়া সম্ভব তা প্রত্যক্ষ করতে হলে যেতে হবে জয়নুল হক সিকদারের কাছে। সততা, কর্মনিষ্ঠা ও একাগ্রচিত্তে মনোনিবেশ করে মানুষ যে সাফল্যের চূড়ায় উঠতে পারে জনাব জয়নুল হক সিকদার তার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। জয়নুল হক সিকদার একটি নাম, একটি ইতিহাস, একটি কিংবদন্তি, একজন ক্ষণজন্মা পুরুষ। বাহ্যিক দৃষ্টিতে জয়নুল হক সিকদার মেজাজী ও একরোখা মনে হলেও বাস্তবে তিনি হৃদয়বান, পরোপকারী ও ন্যায়ের ওপর প্রতিষ্ঠিত একজন দেশপ্রেমিক।

পৃথিবীর বিখ্যাত ব্যক্তিদের অধিকাংশেরই খ্যাতি ছড়িয়েছে তাদের মৃত্যুর পর। কিন্তু জয়নুল হক সিকদার এমনই একজন কিংবদন্তী যার খ্যাতি তার জীবদ্দশাতেই দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়েছে, আলোকিত করেছে দেশ বিদেশের লাখ লাখ পরিবার। হাসি ফুটিয়েছেন লাখ লাখ মা বাবার মুখে। এসব সম্ভব হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়, একাধিক মেডিকেল কলেজ, ডেন্টাল কলেজ, অনেকগুলো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং ব্যাংক ও বীমা প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে। ধর্মীয় অনুপ্রেরণায় নির্মাণ করেছেন অসংখ্য মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিমখানা ও বৃদ্ধাশ্রম। তিনি একমাত্র কিংবদন্তি সর্বজন শ্রদ্ধেয় জয়নুল হক সিকদার। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ পর্যন্ত সবারই তিনি চাচা কতো আপন, কতো কাছের।


এ জাতীয় আরো সংবাদ