• শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৮:২৬ পূর্বাহ্ন
  • English Version | Epaper
শিরোনাম :
কোম্পানীগঞ্জে ইয়াবাসহ মাদক কারবারি আটক নোয়াখালীতে ইসলামি হাসপাতাল সিলগালা লাইট হাউস ফরিদপুরের বিশ্বএইডস দিবস পালন ফরিদপুরে কর্মসম্পাদন চুক্তির আঞ্চলিক পর্যায়ের স্টক হোল্ডার দের সেমিনার অনুষ্ঠিত জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও এনজিও সমূহের উদ্যোগে ফরিদপুরে বিশ্ব এইডস দিবস পালিত আলফাডাঙ্গায় স্বাস্থ্যসহকারীদের কর্মবিরতি অব্যাহত ফরিদপুরে ৪২ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহের উদ্ধোধন ফরিদপুরের পুলিশ সুপারের কাছে অসহায় শীতার্তদের জন্য কম্বল দিলেন ডক্টর যশোদা জীবন দেবনাথ শীতার্তদের পাশে কম্বল নিয়ে হাজির ফরিদপুর পুলিশ সুপার বেগমগঞ্জে আ’লীগের নবগঠিত আহবায়ক কমিটির পরিচিতি সভা
নোটিশ :
Wellcome to our website...

সোনাইমুড়ীতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা, আহত ৩

প্রথমসংবাদ ডেক্স : / ৩৫ বার
আপডেটের সময় : শুক্রবার, ১৩ নভেম্বর, ২০২০

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে মধ্যরাতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালিয়ে দুই সহোদর সহ তিনজনকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে।
বৃহস্পতিবার গভীর রাতে সোনাইমুড়ী বাইপাস সড়ক সংলগ্ন খালেক এন্টারপ্রাইজে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সোনাইমুড়ী থানার ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ভুক্তভোগী ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোনাইমুড়ী পৌরসভার নাওতলা গ্রামের গনি মুন্সিবাড়ীর খালেকের ছেলে আবু সাইদ, আবুল হাসান, ও আব্দুল আউয়াল সোনাইমুড়ী বাইপাস সড়ক সংলগ্ন খালেক এন্টারপ্রাইজে ইট, বালু, বাশ, খোয়া সহ সেনেটারী ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন।

আব্দুল খালেক গং দের সাথে একই বাড়ীর সামসুদ্দিন ওরফে মশা মিয়া(৭০) তার সহদর ভাই সাহাব উদ্দিন(৬৫) ও মৃত আবদুল মতিনের ছেলে ফখরুল ইসলাম সুজন ও আরমান হোসেন সাকেরদের দীর্ঘদিন ধরে জায়গা জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আবদুল মতিনের ছেলে ফখরুল ইসলাম সুজন ও আরমান হোসেন শাকেরের নেতৃত্বে ১০ থেকে ১৫ জন মুখোশ পরা সন্ত্রাসী খালেকের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খালেক এন্টারপ্রাইজে হামলা চালায়। এসময় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঘুমন্ত অবস্থায় খালেকের দুই ছেলে আবু সাইদ (৪৩) ও আবুল হাসান (৩৯) কে হত্যার উদ্দেশ্যে সন্ত্রাসীরা এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। তাদের আত্মচিৎকারে চাচাতো ভাই জানে আলম মানিক(৩৮) এগিয়ে গেলে সন্ত্রাসীরা তাকেও পিটিয়ে আহত করে। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য নোয়াখালী সরকারি হাসপাতালে প্রেরণ করেন। আহত আবু সাইদের অবস্থা আশংকাজনক এবং আবুল হাসান ও জানে আলম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
ভুক্তভোগী আব্দুল খালেক জানান, হামলাকারীরা প্রায় সময় তাদের সম্পত্তি দখল করার চেষ্টা করে। এ বিষয়ে আদালতে মামলাও রয়েছে। আরমান হোসেন সাকের নামে একজন কক্সবাজারে র‌্যাবের সদস্য হিসেবে কর্মরত রয়েছে, সে অন্যায়ভাবে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রভাব দেখিয়ে বিভিন্ন সময় তাদের উপর অত্যাচার করে বলেও তিনি জানান।

সোনাইমুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) গিয়াস উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ করেনি, তবে পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


এ জাতীয় আরো সংবাদ