শিরোনাম :
ঘাতকদের নির্মম আঘাতে নিহত বায়োবৃদ্ধ আসাদ শেখের খুনিদের দাবিতে নিহতের পরিবার ও গ্রামবাসীর মানববন্ধন সেনবাগে কাবিলপুর একতা সমাজ সংঘের উদ্দ্যোগে ইফতার পার্টি ও ঈদ বস্র উপহার বিতরণ সেনবাগে সৈয়দ হারুন ফাউন্ডেশনের পক্ষ হতে ৪০০ পরিবারকে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ সেনবাগে সেলিম উদ্দিন কাজল এর উদ্দ্যোগে দেশবাসীর জন্য দোয়াও মেজবানী অনুষ্ঠিত সেনবাগে কাবিলমিয়া ফাউন্ডেশনের উদ্দ্যোগে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ সেনবাগে অসহায় গরীবের মাঝে প্যানেল চেয়ারম্যান স্বপনের ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ ফরিদপুর জেলা পুলিশের প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত মীনার স্বপ্নপূরণের সহযাত্রী ফরিদপুর জেলা প্রশাসন বৃহত্তর গোয়ালচামট বাসীর পক্ষ থেকে শান্তিনিবাসে ইফতার বিতরণ সেনবাগে পৌরমেয়র প্রার্থী সাইফুল ইসলাম বাবুর করোনাকালীন খাদ্য সামগ্রী বিতরণ
নোটিশ :
Wellcome to our website...

সেনবাগ – দাগনভুঞা সীমান্ত এলাকায় দূর্বৃত্তের হামলায় যুবক রক্তাক্ত ও বসতঘরে লুটপাটের অভিযোগ

প্রথমসংবাদ ডেক্স : / ৯১ বার
আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল, ২০২১

রফিকুল ইসলাম সুমন (সেনবাগ )ঃঃ নোয়াখালী সেনবাগের ৪ নং কাদরা ইউনিয়নের নন্দীরপাড়া-খালপাড় এলাকায় গত ২১ এপ্রিল বুধবার রাত ৯ টায় চারজন মুখোশধারী সন্ত্রাসী কর্তৃক মোঃ মাহফুজ আলম (২০) নামে এক যুবককে বেধড়ক পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম ও বসতবাড়ীতে হামলা ভাংচুর, লুটপাট ও ভুক্তভোগীর পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি প্রদর্শনের অভিযোগ উঠেছে।

সরজমিনে গেলে ভুক্তভোগী পরিবার ও স্থানীয় এলাকাবাসী সুত্রে জানাযায় ,সেনবাগের সীমান্ত এলাকায় দাগনভুঞার ১ নং সিন্দুরপুর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড দীঘিরপাড় গ্রামের মুনা গাজী বাড়ীর আবদুল মান্নান এর পুত্র মোঃ মাহফুজ আলম(২০) এর সাথে একই বাড়ীর আবদুর রাজ্জাকের পুত্র প্রবাসী মানিকের স্ত্রীর সাথে অবৈধ সম্পর্ক ও সখ্যতার সন্ধিহান হয়ে, আবদুল হক মনাফ (২৪) গত ১৫-২০ দিন যাবত মাহফুজকে হুমকি ধমকি প্রদর্শন ও গালমন্দ করে আসছিলো।

তারি রেশ ধরে গত ২১ এপ্রিল বুধবার রাত ৯ টায় সেনবাগের নন্দীরপাড়া খালপাড় এলাকায় ৪ জন মুখোশধারী মাহফুজকে রড ও হকিস্টিক দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে রাস্তায় ফেলে চলে যায় এবং যাওয়ার সময় আবদুল হক মনাফের নির্দেশে মারধর করার কথা ও জানিয়েদেন হামলাকারী।

হামলার শিকার মাহফুজের পিতা আবদুল মান্নান (৫৫) উক্ত ঘটনার বিচার ছেয়ে স্থানীয়
গন্যমান্যদের কাছে নালিশ করলে, এতে আবদুল হক মনাফ ও তার ভগ্নিপতি একই গ্রামের ইউনুস মিয়ার ছেলে ছান্দুমিয়া ওরপে মিয়াধন (৪৪) ক্ষিপ্ত হয়ে, আজ ২২ এপ্রিল বৃহস্পতিবার দুপুর ১ টার দিকে, স্বদলবলে দেশীয় অস্ত্রসস্র নিয়ে মাহফুজের বসতঘরে ঢুকে পুনরায় মারধরও হামলা করে। এসময় পরিবারের লোকজন তাকে বাচাঁতে এলে মাহফুজের পিতা আবদুল মান্নানকে ও কিল-ঘুষি ও রড দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। পরবর্তীতে প্রতিবেশীরা এসে ভুক্তভোগীদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য দাগনভুঞা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

অপরদিকে একই ঘরে বসবাসরত আবদুল মান্নান এর ভাই প্রবাসী আবদুল খালেক এর স্ত্রী রুমা আক্তার গণমাধ্যমকে জানান,সন্ত্রাসীরা মাহফুজ ও তার পিতা মান্নানকে মারধর করেই ক্ষ্যান্ত হননি।তারা বসতঘরের প্রতিটি কক্ষে ঢুকে বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাংচুর, আমার স্বয়নকক্ষে ঢুকে ৩ টি মোবাইল সেট, বিদেশ থেকে পাঠানো নগদ ৬০ হাজার টাকা,আংটি- চেইন- হাতের ছুড়ি সহ প্রায় ৩ ভরি স্বর্নালংকার নিয়ে যায় হামলাকারীরা।পাশাপাশি আইনের আশ্রয় নিলে আমাদেরকে স্বপরিবারে হত্যার হুমকি দেয় হামলাকারী আবদুল হক মনাফ ও তার ভগ্নিপতি ছান্দুমিয়া ( মিয়াধন)।

বর্তমানে প্রাণনাশের আশংকায় ভুগছেন মাহফুজ ও তার পারিবারের সদস্যগন।
এবিষয়ে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে ও গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীর পরিবার।


এ জাতীয় আরো সংবাদ